শ্রীনগরে ধানের জমি পরিচর্যায় ব্যস্ত কৃষক

ধান উৎপাদনের অন্যতম বৃহৎ উপজেলা মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে বোরো ধানের জমি পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষক। আবাদি ধানের জমিতে পানিসেচ, সার ও প্রয়োজনীয় কীটনাশক স্প্রে করাসহ বিভিন্ন কাজকর্ম করছেন তারা। এখনও অনেক জমিতে ধানের চারা রোপনের অপেক্ষায় আছেন কৃষক। কারণ হিসেবে জানা যায় বিভিন্ন বিলে জলাবদ্ধতার কারণে এমনটা হচ্ছে। তবে এরই মধ্যে আড়িয়ালবিল ও অন্যান্য বিলে আগাম বোরো ধানের জমিগুলো পরিচর্যা করে ব্যস্ত সময় কাটাতে দেখা গেছে। এসব ধানের জমিতে পুরুষ কৃষি শ্রমিকের পাশাপাশি নারী শ্রমিকরাও সমান তালে কাজ করছেন। জমিতে কৃষি কাজকর্ম করে ভালোই আয় রুজী হচ্ছে করতে পারছেন তারা।

সরেজমিনে দেখা গেছে, শীতের কুয়াসা ভেজা শীতের সকালে দল বেঁধে জমিতে কাজ করতে ছুটে আসছেন নারী ও পুরুষ কৃষি শ্রমিক। শীত উপেক্ষা করে জমির পরিচর্যায় দিনের সকাল-দুপুর পর্যন্ত তারা সাড়িবদ্ধভাবে ধান ক্ষেতের আগাছা ও জঙ্গল পরিস্কার ও নিড়ির কাজ করছেন। দৈনিক মজুরি হিসেবে তারা পাচ্ছেন ৩০০-৩৫০ টাকা করে। সাথে পাচ্ছেন শুকনো খাবার। এসময় কৃষি শ্রমিকরা বলেন, খুব সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত কয়েক ঘন্টা কাজের বিনীময়ে ৩০০ থেকে ৩৫০ টাকা মজুরি পাচ্ছেন। সাথে পাচ্ছেন শুকনো খাবার। পরিবার পরিজন নিয়ে কয়েক মাসের জন্য এসেছেন। জেলার শ্রীনগর ও হাট নওপাড়া এলাকায় ছোট ছোট ঘর ভাড়া করে থাকছেন। ধানের পাশাপাশি বিভিন্ন আলুর জমিতেও কাজ করে আয় করতে পারছেন জানান তারা। স্থানীয় কৃষকরা জানান, ধানের জমিতে নীড়ির কাজের জন্য তারা কাজ করছেন। পুরুষ শ্রমিকে পাশাপাশি নারীরাও সমান তালে কাজ করতে পারছেন। এই অঞ্চলে কৃষি কাজকর্ম তাদের ওপর অনেকটাই নির্ভরশীল হয়ে পরেছে। এখানকার বিশাল কৃষি কর্মযজ্ঞে তারাও বিশেষ অবদান রাখছেন।

খোঁজ খবর নিয়ে জানা যায়, শ্রীনগর উপজেলায় মোট ১০ হাজার হেক্টরের অধিক জমিতে বোরো ধানের আবাদ করা হচ্ছে। এর মধ্যে বিস্তীর্ণ আড়িয়ালবিলের শ্রীনগর অংশে রয়েছে ৫ হাজার হেক্টর বোরোর আবাদ।

গ্রামনগর বার্তা

Leave a Reply