ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা বোন, মামলার পর ভাইকেও হত্যা করলো অভিযুক্তরা

মুন্সীগঞ্জের টংগীবাড়ি উপজেলার আব্দুল্লাহপুরে ধর্ষণের শিকার কিশোরীর ভাই পারভেজকে অভিযুক্তরা ৩ দফা মারধর করে মুখে বিষ ঢেলে দিয়ে হত্যা করেছে বলে পারভেজের বাবা মহিউদ্দিন অভিযোগ করেছেন।

মঙ্গলবার (১ জুন) ভোর রাতে মিডফোর্ট হাসপাতালে নিয়ে গেলে সে মারা যায়। নিহত পারভেজ (১৮) টংগীবাড়ি উপজেলার আব্দুল্লাহপুর ইউনিয়নের পূর্ব পাইকপাড়া এলাকার মহিউদ্দিন খান এর ছেলে।

পারভেজ

পারভেজের বাবা মহিউদ্দিন জানান, গত ২০ দিন আগে ধর্ষণের শিকার হয়ে আমার মেয়ে (১৩) সন্তান প্রসব করে। গত শনিবার (২৯ মে) রাতে আমার ছেলেকে তুচ্ছ ঘটনায় ধর্ষক ছেলে সামিরের (১৮) আপন মামা বাচ্চু কোতয়াল (৫৫), হাসান (৫০) ও হাসানের স্ত্রী অজ্ঞাত (৩৫) ব্যাপক মারধর করে ও অপমান করে। পরদিন রবিবার (৩০ মে) আমার ছেলে অপমান সইতে না পেরে কিটনাশক পান করে। আমরা তাকে দ্রুত মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখান থেকে চিকিৎসকরা তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। পরবর্তীতে সেখান থেকে মিটফোর্ড হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানেই সোমবার রাত ৪ টার দিকে আমার ছেলে মারা যায়। আমি এ ঘটনার কঠিন শাস্তি চাই।

এ বিষয়ে টংগিবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারুন অর রশিদ জানান, ধর্ষণের বিষয়ে একটি মামলা আদালতে চলমান আছে। মূল অভিযুক্তকে পুলিশ গ্রেফতারের পর আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে। কিটনাশক পানে মৃত্যুর ঘটনাটি পরিবার সূত্রে পুলিশ জানতে পেরেছে। এ ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেলে পুলিশ যথাযথ ব্যবস্থা নিবে।

ইত্তেফাক/এসজেড

Leave a Reply