সিরাজদিখান পুরাতন মোস্তাগঞ্জে দেয়াল তুলে রাস্তা বন্ধ করার চেষ্টা, এলাকাবাসীর ক্ষোভ

মুন্সীগঞ্জ সিরাজদিখান পুরাতন মোস্তাগঞ্জে দেয়াল তুলে দীর্ঘদিনের চলাচলের রাস্তায় দেয়াল তুলে চলাচল বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে। এতে প্রায় ২’শ পরিবারের অধিক মানুষের ইছাপুরা বাজার,কলেজও স্কুলে যাওয়া আসার সমস্য সৃস্টির কারণে এলাকাবাসীর মাঝে ক্ষোভের সৃস্টি হয়েছে। রাস্তায় দেয়াল তুলে দেয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে বলে স্থানীয়রা জানায়।

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, মধ্যপাড়া ইউনিয়নের পুরাতন মোস্তফাগঞ্জ গ্রামের মাওলানা আজিজুল রহমানের ছেলে মাওলানা মোখলেছুর রহমান ও তার পরিবার ওই জমির মালিকানা দাবি করে ওই জমিতে পাকা পিলার ও পাকা দেয়াল নির্মাণ করায় রাস্তাটি বন্ধ হয়ে যাবে। ফলে ওই ৫/৭ গ্রামের গ্রামের ২’শ পরিবারের সদস্যদের সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হবে। এলাকার মৃত রমিজ খানের ছেলে মজিদ খান,মোঃ ইব্রাহীম,ও মধ্যপাড়া ৩নং ওয়ার্ড সদস্য মোঃ আসাদুজ্জামান বলেন, রাস্তাটি নির্মাণ হলে এ এলাকার প্রায় ৫/৭টি গ্রামের কয়েক হাজার লোকের স্কুল, কলেজ, হাট-বাজারে যেতে সুবিধা হবে। পাকা পিলার দিয়ে জনগনের চলাচলের রাস্তা কেউ আটকাতে পারবে না।

সরজমিন জানা যায়, উপজেলার ৪নং মধ্যপাড়া ইউনিয়নের পুরাতন মোস্তফাগঞ্জ এলাকার লোকজন দীর্ঘদিন যাবৎ এই রাস্তা দিয়ে চলাফেরা করে আসছিল। একে অপরের জায়গার উপর দিয়ে চলাচল সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিবেশী অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী কেয়ারটেকার দিয়ে প্রভাব খাটিয়ে চলাচলের রাস্তায় দেয়াল তুলে চলাচল বন্ধ করে দেয়ার পায়তারা চালাচ্ছে। রাস্তায় দেয়াল তুলে প্রতিবন্ধকতা সৃস্টির ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে রাজমিস্ত্রী মোঃ জাহাঙ্গির জানান, চলাচলের রাস্তা নিয়ে আমাদের মধ্যে দীর্ঘদিনের বিরোধ চলে আসছিল।

স্থানীয় কোনো ফয়সালা প্রতিপক্ষ ৪নং ওয়ার্ড সদস্য মোঃ আলমগীর শেখের সাথে সমাধান হয় নাই। তাই নিজের জমি জায়গা রক্ষা করতেই রাস্তায় দেয়াল তুলে দেয়া হচ্ছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ আলমগীর শেখ বলেন, ‘আমি চেয়ারম্যানকে জানিয়ে পরে স্বপন খালাসীর ও তার পরিবারকে রাস্তাটিতে পিলার ও দেওয়াল না দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেছি। এ বিষয় নিয়ে অনেকবার কথা হয়েছে। কিন্তু তারা আমাদের কথা শোনেননি।পাকা পিলার তুলে রাস্তা বন্ধ করার ও চলাচলে বিগ্ন সৃষ্টিতে এলাকাবাসীর মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

সিরাজদিখান থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ বোরহান উদ্দিন বলেন, এ বিষয়ে কোনো পক্ষ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

গ্রামনগর বার্তা

Leave a Reply