মুন্সীগঞ্জের ৯ গ্রামে আগাম ঈদ উদযাপন

প্রতি বছরের মতো এবারো সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে মঙ্গলবার ঈদ উদযাপন মুন্সীগঞ্জের ৯ গ্রামের প্রায় ৫ হাজার মুসলমান। গ্রামগুলো হচ্ছে- সদর উপজেলার আনন্দপুর, শিলই, নায়েবকান্দি, আধারা, মিজিকান্দি, কালিরচর, বাংলাবাজার, বাঘাইকান্দির ও কংসপুরার একাংশ। গ্রামগুলোর জাহাগীর তরিকার লোকজন কয়েক বছর ধরে সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে এবারও একদিন আগে ঈদ উদযাপন করছে। বিগত বছরগুলোরমত শিলই গ্রামে এই ঈদ জামাতে ইমামতি করেছেন হাজী ডা. মনিরুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘পৃথিবীর যে কোন স্থানে নব চন্দ্র দেখা দিলে সেই অনুযায়ী ঈদ পালন করা উচিত। তাই আমরা সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে ঈদ উদযাপন করছি।’

এসব এলাকার মানুষ দীর্ঘদিন ধরেই ঈদসহ অন্যান্য ধর্মীয় অনুষ্ঠান পালন করে আসছেন আরবের সঙ্গে মিল রেখে।

ঈদুল আজহা বা কুরবানির ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হওয়ার পরই পশু কোরবানির দেয়া হবে বলে জানান। এর আগে এসব অঞ্চলের মুসল্লিরা একদিন আগেই ঈদুল ফিতরের রোজা ও ঈদের অনুষ্ঠানিকতা পালন করেছিলেন।

জনকন্ঠ

Leave a Reply