শ্রীনগরে ২ বিয়ের পর অন্যের স্ত্রীকে নিয়ে উধাও মুন্সীগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সহ সম্পাদক

আরিফ হোসেনঃ শ্রীনগরে ২ স্ত্রী রেখে অন্যের স্ত্রীকে উধাও হয়ে গেছে মুন্সীগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সহ সম্পাদক রুবেল ইসলাম জয়। গত ১১ নভেম্বর শ্রীনগর উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন চলাকালে জয় ২ সন্তানের জননী আইরিন বেগমকে নিয়ে উধাও হয়ে যায়। এঘটনায় আইরিন বেগমের স্বামী মোঃ ফারুক বাদী হয়ে রবিবার সকালে শ্রীনগর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

স্থানীয়রা জানায়, মুন্সীগঞ্জ জেলা ছাত্র লীগের সহ সম্পাদক ও উপজেলার কোলাপাড়া গ্রামের গাবতলা এলাকার বাবু মিয়ার ছেলে রুবেল ইসলাম জয়(৩০) একই এলাকার ফারুক খানের স্ত্রী আইরিন বেগম (২৭) এর সাথে পরকিয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে। গত ১১ নভেম্বর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের দিন সকলের ব্যস্ততার সুযোগে জয় ২ সন্তানের জননী আইরিন বেগমকে নিয়ে পালিয়ে যায়। জয় এর আগেও ২টি বিয়ে করে। প্রথম স্ত্রীর সাথে ছাড়াছাড়ি হয়ে যাওয়ার পর সে দ্বিতীয় বিয়ে করে। এই সংসারে তার ১ সন্তান রয়েছে।

আইরিনের স্বামী মোঃ ফারুক অভিযোগ করেন, তার স্ত্রী রুবেলের সাথে পালিয়ে যাওয়ার সময় আড়াই ভরি স্বর্ণালংকার ও নগদ ২ লাখ টাকা নিয়ে গেছে। বিষয়টি রুবেলে বড় ভাই নুর মোহাম্মদকে জানালে সে আমার স্ত্রীকে তার ভাইয়ের কাছ থেকে উদ্ধার করে স্বর্ণালংকার ও টাকা সহ ফেরত দেওয়ার আশ^াষ দিয়ে থানায় অভিযোগ করতে নিষেধ করে। কিন্তু পরে সে তালবাহানা শুরু করে।

স্থানীয়রা আরো জানায়, রুবেল ইসলাম জয় এলাকায় ইয়াবাখোর হিসাবে পরিচিত। এর আগে তার ইয়াবা সেবনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। পরে সে বিদেশ চলে যায়।

মুন্সীগঞ্জ জেলা ছাত্র লীগের এক নেতা জানান, প্রায় ৬ বছর আগে মুন্সীগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের কমিটিতে সে সহ সম্পাদকের পদ পায়।

এব্যাপারে রুবেল ইসলাম জয়ের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার ফোন নাম্বার বন্ধ পাওয়া যায়।

শ্রীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আমিনুল ইসলাম বলেন, লিখিত অভিযোগ হয়েছে কিনা তা আমার জানা নেই। আর হয়ে থাকলেও তা এখনো আমার টেবিল পর্যন্ত পৌঁছে নি। অভিযোগপত্র পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply