মুন্সীগঞ্জে নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ২

মুন্সীগঞ্জে সদর উপজেলায় ইউপি নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর পৃথক সহিংসতায় শাকিল (১৭) ও রিয়াজুল শেখ (৭০) নামের দুইজন নিহত ও কয়েকজন আহত হয়েছেন। আহতদের মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রোববার রাত ৭ থেকে ৮টার মধ্যে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও নিহতের পরিবার জানায়, বাংলাবাজার ইউনিয়নের বানিয়াল কাজিরচর এলাকার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কেন্দ্র ফলাফল ঘোষণার পর পরাজিত মহিলা মেম্বার আরফা বেগমের কর্মীরা ধারালো অস্ত্রে দিয়ে আঘাতে বিজয়ী মহিলা মেম্বার প্রার্থী রাবেয়া বেগমের ভাগ্নে শাকিল নিহত হন।

নিহত শাকিলে শরিয়তপুর জেলার সফিপুর থানাধীন দোলারচর এলাকার কাচিকাটা গ্রামের হারুন মোল্লার ছেলে। তিনি তার মামি রাবেয়া বেগমের বাড়িতে বেড়াতে এসেছিলেন।

এদিকে, একই উপজেলার পঞ্চসার ইউনিয়নের গোসাইরবাগ গ্রামের রিয়াজুল শেখের মৃত্যু হয়েছে। সে ওই ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী (টেলিফোন) আলী সিদ্দিকের বড় ভাই।

নিহতের স্ত্রী বিলকিস বেগম জানান, রাতে ফলাফল ঘোষণার পর বিজয়ী স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর (আনারস) কর্মীরা বাড়িতে ঢুকে ভাঙচুর করে এবং হামলা চালিয়ে তাকে হত্যা করে। এর আগে দুপুরে নির্বাচন চলাকালীন সময়ে তাকে হুমকি দেয় তার লোকজন।

মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাক্তার শৈবাল বসাক জানান, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে শাকিলের মৃত্যু হয়েছে। আর রিয়াজুল শেখের দেহে কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর আসল কারণ বলা যাবে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুমন দেব জানান, নির্বাচনে প্রতিপক্ষের হামলায় শাকিল আহত হলে হাসপাতালে আসলে ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন। আর রিয়াজুল শেখের পরিবারের অভিযোগের প্রেক্ষিতে আমরা তদন্ত করছি। ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে বলে তিনি জানান।

আর টিভি

Leave a Reply