ডুবে যাওয়া বাল্কহেডের ভেতরেই মিললো নিখোঁজ শ্রমিকের মরদেহ

নারায়ণগঞ্জের চরকিশোরগঞ্জ এলাকায় মেঘনা নদীতে লঞ্চ সুরভী-৭ এর ধাক্কায় বাল্কহেড ডুবির ঘটনায় নিখোঁজ শ্রমিক মোতালেব হোসেনের (৫৫) মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

শনিবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে দুর্ঘটনা কবলিত নৌযানটির ভেতর থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল। মৃত মোতালেবের বাড়ি ভোলায়।

কলাগাছিয়া নৌপুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. জহিরুল হক জাগো নিউজকে বলেন, ডুবুরি দলের তৃতীয় দিনের অভিযানে বাক্লহেডের ভেতর থাকা একটি কেবিন থেকে নিখোঁজের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মরদেহের সুরতহাল করা হচ্ছে। সুরতহাল ও আইনি পদক্ষেপ শেষে স্বজনদের কাছে মরদেহ বুঝিয়ে দেওয়া হবে।

১৭ ফেব্রুয়ারি রাত ১১টার দিকে ঢাকা থেকে বরিশালের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায় যাত্রীবাহী লঞ্চ সুরভী-৭। রাত পৌনে ১১টার দিকে লঞ্চটি চরকিশোরগঞ্জ এলাকায় পৌঁছালে চাঁদপুর থেকে ঢাকার ডেমরাগামী বালুবাহী বাল্কহেডকে ধাক্কা দেয়। এতে ছয় শ্রমিকসহ ডুবে যায় নৌযানটি। তাদের মধ্যে চারজন সাঁতরে তীরে ও একজন অপর একটি লঞ্চে ওঠেন। তবে নিখোঁজ ছিলেন শ্রমিক মোতালেব। তার সন্ধানে উদ্ধারে অভিযান চালাচ্ছিল নৌপুলিশ, ফায়ারসার্ভিস ও কোস্টগার্ড।

আরাফাত রায়হান সাকিব/জাগো নিউজ

Leave a Reply