শ্রীনগরে আওয়ামী লীগের সম্মেলনে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি লাঞ্চিতঃ উত্তেজনা,অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন

মোঃ আরিফ হোসেন: মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার হাঁসাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলনে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের প্রশাসক মোহাম্মদ মহিউদ্দিনকে লাঞ্চিত করা হয়েছে। এসময় কলেজের গেটে তালা দিয়ে তাকে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়। পরে পুলিশী পাহারায় তিনি স্থান ত্যাগ করেন। শনিবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে হাঁসাড়া কালী কিশোর স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে এই ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় উত্তেজনা বিরাজ করায় ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও সম্মেলনের একাধিক কাউন্সিলর জানান, শনিবার বিকাল ৩টার দিকে সম্মেলনের প্রধান অতিথী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ মহিউদ্দিন ও বিশেষ অতিথী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান কাউন্সিলরদেরকে হাঁসাড়া কালী কিশোর উচ্চ বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় তলার একটি কক্ষে ডেকে নেন। সেখানে সভাপতি পদে পূর্বের কমিটির সভাপতি আহসান হাবীবের সাথে কোন প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় তাকে সভাপতি ঘোষণা করা হয়। সাধারণ সম্পাদক পদে পূর্বের কমিটির সাধারণ সম্পাদক আইয়ূব খান ও আওয়ামী লীগ নেতা জসিম উদ্দিন মুকুল প্রতিদ্বন্দ¦ীতা করলেও মোহাম্মদ মহিউদ্দিন জসিম উদ্দিন মুকুলকে সাধারণ সম্পাদক হিসাবে ঘোষণা করেন। এসময় উত্তেজনা শুরু হয় এবং কাউন্সিলরদের একাংশ ভোট দাবী করে স্লোগান দিতে শুরু করে। মোহাম্মদ মহিউদ্দিন এসময় দুটি প্যানেলের কথা উল্লেখ করে বলেন এক প্যানেল থেকে সভাপতি ঘোষণা করা হয়েছে তাই অপর প্যানেল থেকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হল। আপনারা যেহেতু এই সিদ্ধান্ত মানছেন না তাই সম্মেলন স্থগিত করা হলো এবং পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে এই বক্তব্য শেষ করে তিনি নেতা-কর্মীদের সহায়তায় দোতলা থেকে নীচে নেমে আসেন। গাড়ীতে উঠার আগে তাকে কয়েকজন মিলে লাঞ্চিত করে এবং কলেজের গেটে তালা লাগিয়ে দেয়। এসময় পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে এবং গেটের তালা ভেঙ্গে তাকে বহনকারী গাড়িটি পার করে দেয়। এই ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পরলে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে এবং হাঁসাড়া এলাকায় অবস্থান নেয়।

শ্রীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আমিনুল ইসলাম বলেন, হাঁসাড়া এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে।

Leave a Reply