সিরাজদিখানে ঘেরে বাঁধ দিতে বাধা, হুমকির মুখে মাছ চাষ

জেলার সিরাজদিখানে মাছ চাষি সোহেল মাঝিকে মাছের ঘেরে বাঁধ দিতে বাধার দেয়ার অভিযোগ পওয়া গেছে। এতে হুমকির মুখে পড়েছে মাছ চাষ। বৃহস্পতিবার (২৬ মে) বিকালে উপজেলার লতব্দী ইউনিয়নের খিদিরপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, সিরাজদিখানের লতব্দী ইউনিয়নের মালিকান্দা গ্রামের মৃত ফুল চাঁন মাঝির ছেলে মো. সোহেল মাঝি (৩৫) চন্ডিবর্দি মৌজার ১ হাজার ৩৫ খতিয়ানের ৮২/৮৩ নং আর এস দাগের ৪২ শতাংশ নিজের পুকুরে হ্যাচারীর পুকুর তৈরি করে এবং আশপাশের জমির মালিকদের থেকে জমি লিজ নিয়ে বিভিন্ন প্রজাতির মাছ চাষ ও রেণু উৎপাদন করছেন। বর্তমানে ওই পুকর ও আশপাশের জলাশয়ে যে পোনা রয়েছে তার দাম প্রায় ২০ লাখ টাকা। এ সময়ে পুকুরে মাছ রক্ষার্থে মাটির বাঁধ দিতে গেলে মাছ ব্যবসায়ী সোহেল মাঝি হয়রানির শিকার হচ্ছেন।

সোহেল মাঝি জানান, ট্রেড লাইসেন্স নিয়েও মৎস চাষ করতে গিয়ে তাকে হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে। কচুরিপানা ও ঝোপ ঝাড় লেবার দিয়ে পরিষ্কার করে নিজের জায়গা ও অন্যান্যদের জমি লিজ নিয়ে মাছ চাষ করায় বাধার মুখে পড়ছেন তিনি।

খিদিরপুর গ্রামের মৃত জলিল মাদবরের ছেলে চাঁন মিয়া ও সুরুজ কোন কারণ ছাড়াই আমার পুকুরের মাছ রাক্ষার্থে আমাকে বাধা দিচ্ছে। এগুলো যেন দেখার কেউ নেই। বিষয়টি নিয়ে প্রশাসনের হস্থক্ষেপ কামনা করেছেন মৎস্য ব্যবসায়ী সোহেল মাঝি।

এ বিষয়ে লতব্দী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাফেজ মোহাম্মদ ফজলুল হক বলেন, মাছ চাষের জন্য মো. সোহেল মাঝিকে ট্রেডলাইসেন্স দেয়া হয়েছে। পুকুর রক্ষার্থে তার জমিতে মাটি কেটে বাঁধ দিতে পারে, তবে সেই মাটি অন্য কোন জায়গায় যেতে পারবে না।

নিউজজি

Leave a Reply