মুন্সীগঞ্জে লক্ষাধিক মাটির টোপায় সাজল পূজামন্ডপ

মামুনুর রশীদ খোকা: দেশজুড়ে সনাতন ধর্মাবলম্বীরা পালন করছে শারদীয় দুর্গোৎসব। সারা দেশের ন্যায় মুন্সীগঞ্জের পূজা মন্ডপগুলোও জাঁকজমকভাবে সাজানো হয়েছে। তবে সাজসজ্জায় ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়ে আলোচনায় এসেছে মুন্সীগঞ্জ শহরের নয়াপাড়া এলাকার একটি মন্ডপ। মন্ডপটি সাজানো হয়েছে মাটির তৈরি লক্ষাধিক টোপা দিয়ে। সোনা ও রুপা গলানোর কাজে ব্যবহার করা এসব মাটির গইর‌্যা বা টোপা দিয়ে সাজানো হয়েছে পুরো মন্ডপের দেয়াল ও ছাদ। এ ছাড়া মন্ডপের প্রবেশপথে ছোট ছোট অনেক গেট তৈরি করা হয়েছে মাটির টোপা দিয়ে। নয়াপাড়া এলাকার ডা. দীনেশ মন্ডলের বাড়ির আঙ্গিনায় মাটির টোপায় সাজানো অপরূপ এ পূজা মন্ডপ টানছে সকল ধর্মের সব বয়সের মানুষকে। নয়াপাড়া পঞ্চায়েত পূজা কমিটি ওই বাড়ির আঙ্গিনায় প্রতি বছরই শারদ উৎসবে এমন ব্যতিক্রমী আয়োজন করে আসছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, বঙ্গবন্ধু সড়কের পাশে ওই এলাকার গলির মুখে মন্ডপের প্রবেশ পথে মাটির টোপার ছোট ছোট গেট নজর কাড়ছে সবার। অপরূপ এ মন্ডপে সকাল থেকেই নারী, পুরুষ, শিশুদের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ করা গেছে।

ডা. দীনেশ মন্ডলের ভগ্নিপতি নীলকমল দাস জানান, শহরের বিভিন্ন সোনার দোকান থেকে মাটির ওই টোপা সংগ্রহ করা হয়েছে। এরপর ৪০ স্বেচ্ছাসেবী ৩৫ দিন ধরে দিনরাত কাজ করে পূজা মন্ডপে ওই টোপা সাজিয়েছেন। প্রায় ৪০ তরুণের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় পূজা মন্ডপটি নজরকাড়া সৌন্দর্য পেয়েছে। এবার ১ লাখ ২০ হাজার মাটির টোপা দিয়ে ওই তরুণরা মন্ডপকে শোভিত করেছে। পূজাম-প সাজানোর প্রধান কারিগর কাজল দাস। তার নেতৃত্বে স্বেচ্ছাসেবীরা দিন-রাত কাজ করেছেন বলে জানান তিনি।

নয়াপাড়া পঞ্চায়েত পূজা কমিটির সভাপতি রনি দাস গুপ্ত বলেন, ‘প্রতি বছরই পঞ্চায়েত কমিটির তরুণদের মাথায় বিভিন্ন ধরনের চিন্তাভাবনা আসে। তাদের সেই ভাবনার অংশ হিসেবেই এবার মন্ডপ সাজাতে মাটির তৈরি টোপা ব্যবহার করা হয়েছে। গেল বছর মন্ডপ সাজানো হয়েছিল কাঁচা বাদামের খোসা দিয়ে। মূলত মাটির তৈরি এ টোপা বা গইর‌্যা সোনার দোকানে সোনা ও রুপা গলানোর কাজে ব্যবহার হয়ে থাকে। স্বেচ্ছাসেবী তরুণরা বিভিন্ন স্বর্ণের দোকান থেকে মাটির টোপা সংগ্রহ করে। তারা কেউ প্রফেশনাল নয়। তবু তাদের নিপুণ হাতের ছোঁয়ায় এক অন্যন্য সৌন্দর্য ছড়াচ্ছে ম-পের চারপাশ।’

স্বেচ্ছাসেবী লোকনাথ বলেন, ‘আমরা প্রায় ৪০ তরুণ নিজেরা একত্রে বসে চিন্তাভাবনা করে থাকি। পরে সকলের মতামতের ভিত্তিতে আমরা ম-প সাজানোর পরিকল্পনা নিয়ে থাকি। এবার আমরা মন্ডপ সাজাতে দেড়মাস আগে প্রস্তুতি নিয়েছি। প্রায় ৩৫ দিন সময় নিয়ে মাটির টোপায় মন্ডপ সাজাতে সক্ষম হয়েছি।’

দেশ রুপান্তর

Leave a Reply