কনকসার গ্রামে গাছ ভেঙে ঘরে চাপা পড়ে মা-মেয়ের মৃত্যু

মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার কনকসার গ্রামে ঘূর্ণিঝড়ের সময় গাছ ভেঙে পড়লে বসতঘরের নিচে চাপা পড়ে মা ও মেয়ের মৃত্যু হয়েছে। গুরুতর আহত হয়েছেন বাবা ও ছেলে।

সোমবার দিনগত রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আসমা বেগম আশু (২৮) ও মেয়ে সুরাইয়ার (৩) লাশ মঙ্গলবার ভোরে স্থানীয়রা চাপা পড়া অবস্থায় উদ্ধার করে।

আহত অবস্থায় বাবা আব্দুর রাজ্জাককে (৩৫) ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অপর আহত ছেলে আরাফাতকে (১০) স্থানীয় একটি হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

স্থানীয়রা জানান, সিত্রাংয়ের প্রভাবে সোমবার দিনভর বৃষ্টি ও প্রবল বেগে বাতাস বইতে শুরু করে জেলার লৌহজং উপজেলার সর্বত্র।

সন্ধ্যার পর বাতাসের গতি বাড়তে থাকে। রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার কনকসার গ্রামের ঝড়ের কবলে টিনের তৈরি ঘরের উপর গাছ ভেঙে পড়ে। এতে বসতঘর বিধ্বস্ত হয়ে নিচে চাপা পড়েন আব্দুর রাজ্জাক, তার স্ত্রী ও ছেলে-মেয়ে।

পরে আজ ভোরে স্থানীয় মুসল্লিরা ফজরের নামাজ আদায়ের জন্য মসজিদে যাওয়ার পথে বিধ্বস্ত অবস্থায় বসতঘরের নিচে ওই পরিবারের সদস্যদের দেখতে পান।

মুসল্লিদের সঙ্গে স্থানীয়রা ঐক্যবদ্ধ হয়ে চাপা পড়ে থাকা অবস্থায় আব্দুর রাজ্জাকের স্ত্রী আসমা ও মেয়ে সুরাইয়ার লাশ উদ্ধার করে। জীবিত অবস্থায় আবদুর রাজ্জাক ও তার ছেলে আরাফাতকে উদ্ধার করে।

লৌহজং থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল জানান, সোমবার দিনগত রাতে বসতঘরের উপর গাছ ভেঙে পড়ে। এতে ঘর বিধ্বস্ত হয়ে নিচে চাপা পড়ে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে।

দেশ রুপান্তর

Leave a Reply