সিরাজদিখানে ধলেশ্বরী নদীর মাটি কেটে বিক্রির অভিযোগ

নাছির উদ্দিন: মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে এক ইট ভাটা মালিকের বিরুদ্ধে অবৈধ ভাবে ধলেশ্বরী নদীর মাটি কেটে বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। উপজেলা বালুচর ইউনিয়নের কয়রাখোলা মৌজার বাবুল মুন্সী ব্রিকফিল্ড স্বত্বাধিকারী আমিনুল মুন্সীর বিরুদ্ধে ওঠে এই অভিযোগ।

স্থানীয় বাসিন্দাদারা জানায়, ইউনিয়ন ভূমি অফিসকে ম্যানেজ করে আমিনুল মুন্সী কিছু দিন ধরে নদীর মাটি কাটছে। এছাড়া আমিনুল মুন্সির বিরুদ্ধে এর আগেও একাধিকবার উপজেলা প্রশাসন মোবাইল কোর্ট করেছে। তিনি এলাকায় কয়েকটা ইটভাটার মালিক ও প্রভাবশালী হওয়ায় স্থানীয় লোকজন তার বিরুদ্ধে কিছু বলার সাহসও পায় না। তবে নদীর মাটি অবৈধভাবে ভেকু মেশিন দিয়ে কাটতে থাকলে যেকোনো সময় নদীর পাড়ের ফসদি জমিগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

আজ সোমবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বাবুল মুন্সী ব্রিক ফিল্ড সংলগ্ন ধলেশ্বরী নদী থেকে স্কেভেটর মেশিনের সাহায্যে মাটি উত্তোলন করে পারে রাখা হচ্ছে। সেই মাটি মাহিন্দ্রতে করে বিভিন্ন ইটভাটা সরবরাহ করা হচ্ছে।

বাবুল মুন্সী ব্রিকফিল্ড স্বত্বাধিকারী আমিনুল মুন্সী বলেন, আমি নৌকার মাধ্যমে ইট বিক্রি করে। তাই পারে নৌকা চাপাতে সমস্যা হলে কিছু মাটি কেটা হয়েছে। আর যে পর্যন্ত নদীতে চর পড়েছে সেগুলো হচ্ছে রেকর্ডিও জমি।

বলচর ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা আব্দুল ওয়াহেদ বলেন, বিষয়টি আমি জানতাম না এখন জানতে পারলাম। আমি এখনই ঘটনা স্থলে যাচ্ছি, দেখে এসিল্যান্ড মহোদয় বরাবর প্রতিবেদন দিব।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরিফুল আলম তানভীর বলেন, নদীর মাটিগ কাটা সম্পূর্ণ অবৈধ। সরেজমিনে তার বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply