গজারিয়ায় অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে গিয়ে অবরুদ্ধ তিতাসের কর্মকর্তারা

মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া উপজেলায় অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্নে অভিযানে গিয়ে স্থানীয়দের বাধার মুখে পড়েন তিতাস গ্যাসের কর্মকর্তারা। এ সময় স্থানীয়রা তিতার গ্যাসের কয়েকটি গাড়ি ও কয়েকজন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে অবরুদ্ধ করে রেখে নানা রকম স্লোগান দিতে থাকে। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করলে অভিযান শেষ না করেই ঘটনাস্থল ত্যাগ করতে হয় তাদের।

মঙ্গলবার (১৩ জুন) দুপুর সাড়ে বারোটায় উপজেলার হোসেন্দী ইউনিয়নের লস্করদী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী কয়েক জনের সাথে কথা বলে জানা যায়, দুপুরে লস্করদী এলাকায় অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে যায় তিতাস গ্যাসের লোকজন। তবে তাদের উপস্থিতিতে বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে স্থানীয়রা। এ সময় কয়েকটি গাড়ি এবং তাদের অবরুদ্ধ করে রাখেন তারা। স্থানীয়দের অবরোধে গজারিয়া-জামালদী সড়কে প্রায় আধা ঘণ্টার মতো যান চলাচল বন্ধ থাকে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ পৌঁছলে পরিস্থিতি শান্ত হয়। অভিযান শেষ না করেই পুলিশের সহায়তায় ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন তিতাস গ্যাসের লোকজন।

তিতাস গ্যাসের সোনারগাঁ আঞ্চলিক বিপণন বিভাগের উপ-মহাব্যবস্থাপক প্রকৌশলী সুরুজ আলম বলেন, আমরা আজ সকালে গজারিয়া উপজেলার জামালদী বাসস্ট্যান্ড এলাকায় অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন অভিযান পরিচালনা করি। বাসস্ট্যান্ড এলাকায় কয়েকটি ছোট ছোট লাইন বিচ্ছিন্ন করার পরে আমাদের একটি টিম লস্করদী এলাকায় বড় একটি লাইন বিচ্ছিন্ন করতে যায়। তবে আমাদের উপস্থিতি টের পেয়ে স্থানীয় লোকজন বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। কিছু বুঝে ওঠার আগেই তারা আমাদের অবরুদ্ধ করে ফেলে। তবে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। আমরা পুনরায় সেখানে অভিযান পরিচালনা করার চেষ্টা করছি।

অভিযানে উপস্থিত ছিলেন, মেঘনা আঞ্চলিক বিপণন অফিসের ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী প্রকৌশলী মনিরুজ্জামান, সোনারগাঁ আঞ্চলিক বিপণন বিভাগের ব্যবস্থাপক (মিটার অ্যান্ড ভিজিল্যান্স) আতিকুল ইসলাম প্রমুখ।

আন্দোলনকারীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, স্থানীয় দালালদের মাধ্যমে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে তারা এক একটি সংযোগ নিয়েছেন। এর আগেও একাধিকবার তিতাস গ্যাস তাদের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছিল। তারা পুনরায় চাঁদা তুলে সংযোগ নিয়েছেন। এখন আর তারা সেই সংযোগ কাটতে দিবেন না। গজারিয়ার অবৈধ সকল গ্যাস সংযোগ বৈধ ঘোষণা করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করেন তারা।

মুন্সিগঞ্জ সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার থান্দার খায়রুল হাসান বলেন, অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে গিয়ে গজারিয়ার লস্করদীতে তিতাস গ্যাস কর্মকর্তারা স্থানীয়দের বাধার মুখে পড়েন। তবে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে দ্রুত পরিস্থিতি শান্ত করেছে। এই মুহূর্তে পরিস্থিতি একেবারে শান্ত।

যমুনা টেলিভিশন

Leave a Reply