প্রতিবন্ধীর টাকা মেরে খাওয়ার অভিযোগে মুন্সিগঞ্জ কোর্টে মামলা

মুন্সিগঞ্জ জেলার টঙ্গীবাড়ী উপজেলার আড়িয়ল ইউনিয়নের মৃত আব্দুল হকের প্রতিবন্ধী ছেলে ওমর চান সেক তার ভাই ভাবি ও ভাতিজার বিরুদ্ধে তিন লক্ষ ৫০০০০ টাকা আত্মসাৎ এর অভিযোগ এনে আজ বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট টঙ্গিবাড়ি আমলি আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। বিচারক উক্ত মামলা টঙ্গীবাড়ি থানাকে তদন্তের জন্য নির্দেশ দেন।

মামলার বিবরণে জানা যায় ২০১৫ সাল থেকে প্রতিবন্ধী ওমর চান তার ভাতিজা হৃদয় শেখ ভাই মোখলেস সেক চাচাতো ভাই আবুল শেখ ও ভাবি সেলিনা বেগম এর নিকট ভিক্ষে করে যার টাকা পেতো তা সহ বিভিন্ন সময়ে ফিতরা যাকাত ও বিভিন্ন খাতে পাওয়া টাকা তাদের কাছে জমা রাখত। জমাকৃত তিন লক্ষ ৫০০০০ টাকা তাদের কাছে চাইতে গেলে তারা জানাই তুই আমাদের কাছে কোন টাকা পয়সা রাখিস নি।

এক পর্যায়ে টাকা চাইতে গেলে ওমর চান কে প্রাণ নাসের হুমকি প্রদান করে তারা। বাবা মা মারা যাবার পরে ওমর চান ভাই ও ভাবিদের সাথে থাকতো এবং মাসে ছয় হাজার টাকা করে দিয়ে যেত। ঘটনায় প্রতিবন্ধী ওমর চান এলাকার মুরুব্বী ও মেম্বার সহ অনেকের কাছে কোন প্রতিকার পাইনি।

ওমর চান আরো জানায় সে বহু কষ্ট করে এ টাকা তার আত্মিয়ার কাছে বিশ্বাস করে গচ্ছিত রেখেছিল। আজ সেই টাকা খলে মূল্য সব গাইব করে দিল ভাই ভাতিজা ভাবি। সে এখন বালিগাও বাজারের পাশে একটি ঘর নিয়ে ভাড়া থাকে।এ ব্যাপারে এলাকার মেম্বার তোফাজ্জল হোসেন জানান এ নিয়ে আগেও থানা পুলিশ হয়েছে। আমি চাই অসহায় প্রতিবন্ধী একটা মানুষ সে যেন ন্যায্য বিচার পায়। মামলার সাক্ষী রহমান মোল্লা ও রাব্বি শেখ বলে আমরা এটা কার ব্যাপারে ঝামেলার কথা শুনেছি আমরা চাই সে তার টাকা ফেরত পাক।

বএনডি

Leave a Reply