সিরাজদিখানে গহনা ও টাকা নিয়ে গৃহবধূ উধাও, কারণ জানালেন স্বামী

সিরাজদিখানে স্বামীর কাছ থেকে স্বর্ণালঙ্কার ও টাকা নিয়ে উধাও হয়েছেন এক গৃহবধূ। গত ২০ এপ্রিল বিকালে শ্বশুরবাড়ি থেকে বাবার বাড়ি যাওয়ার পর উধাও হন মুক্তা আক্তার (৩৫) নামে ওই গৃহবধূ। এরপর থেকে তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

জানা গেছে, প্রায় দশ বছর আগে উপজেলার পশ্চিম ব্রজেরহাটী গ্রামের মৃত জমসের মিয়ার ছেলে মো. মোজ্জাম্মেল হোসেনের সঙ্গে লৌহজং উপজেলার নওপাড়া গ্রামের মৃত আলাউদ্দিন শেখের মেয়ে মুক্তা আক্তারের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই স্ত্রীর পরকীয়া নিয়ে স্বামীর সঙ্গে বিরোধ। তাদের একটি ছেলে সন্তান আছে।

মোজ্জাম্মেল সিরাজদিখান বাজারের গৌতম হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্টে কাজ করতেন। মুক্তা দুই মাস আগে শ্বশুরবাড়ি থেকে বাবার বাড়িতে আসেন। সম্প্রতি মোজ্জাম্মেল স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে কর্মস্থল থেকে শ্বশুর বাড়িতে যান। সেখানে তার স্ত্রীকে না পেয়ে তিনি শাশুড়ির কাছে মুক্তা কোথায় জানতে চান। শাশুড়িসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন বলে- আমাদের মেয়ে তোমাদের বাড়িতে আর যাবে না, তার সঙ্গে তোমার আর দেখা হবে না, তুমি আর এ বাড়ি আসবে না।

এদিকে বাড়ি থেকে ৫০ হাজার টাকা, ২ ভরি স্বর্ণ ও একটি মোবাইল ফোন নিয়ে উধাও হন মুক্তা। তার সঙ্গে থাকা মোবাইল ফোন নম্বরও বন্ধ রয়েছে।

মোজ্জাম্মেল বলেন, এরআগে মুক্তা তার চাচাতো ভাইয়ের সঙ্গে চলে গিয়েছিল। চার/পাঁচদিন পর আসে। এ ধরনের সম্পর্ক নিয়ে আমার সঙ্গে বিরোধ চলছে তার।

সিরাজদিখান থানার ওসি মো. মুজাহিদুল ইসলাম সুমন জানান, এ ঘটনায় মঙ্গলবার লিখিত অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগীর স্বামী। মুক্তাকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

যুগান্তর

Leave a Reply