ইতিহাস-ঐতিহ্যের অন্যতম নিদর্শন সোনারং জোড়া মন্দির

সোনারং জোড়া মঠবাংলাদেশের অষ্টাদশ শতাব্দীর এই প্রত্নতত্ত্ব নিদর্শন। এটি মুন্সীগঞ্জ জেলার টঙ্গীবাড়ী উপজেলার সোনারং গ্রামে অবস্থিত। কথিত ইতিহাসে জোড়া মঠ হিসাবে পরিচিত লাভ করলেও মূলত এটি জোড়া মন্দির। বিস্তারিত… »

বঙ্গবন্ধুর ভাষণ শোনার পর হতে শুরু, সংগ্রহ করেছেন সাড়ে ৪ হাজার রেকর্ড

বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ রেডকোর্স ময়দানে হাজির হয়ে শুনতে পারেননি বাচ্চু মৃধা। সেই ভাষণ শুনেছেন সে রেকর্ডে । শুনার পর হতে ওই ভাষণ গেঁথে রয়েছে তার হৃদয়ে। ভাষণের রেকর্ডটি প্রথম সংগ্রহের পর হতে এখনো পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর সকল বিস্তারিত… »

বিক্রমাদিত্যের প্রতাপে বিক্রমপুর

ইসরাত জাহান ইতি: প্রাগৌতিহাসিক বিক্রমপুর এখন বর্তমানের মুন্সীগঞ্জ। আসলে আজকের মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রাচীন বাংলার গৌরবময় স্থান বিক্রমপুরের অংশ। বর্তমানে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা বিভাগের একটি জেলা হিসেবে বেশ পরিচিত একটি জেলা মুন্সীগঞ্জ। বিস্তারিত… »

সিরাজদীখানের গাঙ্গুলী বাড়ি দখলের পাঁয়তারা

মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত সুদর্শন গাঙ্গুলীর বাড়ি দখলে নেওয়ার প্রচেষ্টায় এলাকার একটি সংঘবদ্ধ চক্র নানামুখী তৎপরতা চালাচ্ছে। প্রতিকারের জন্য সাংবাদ সম্মেলন করেও পড়েছে বিপাকে গাঙ্গুলী পরিবার। গভীর রাতে ঘরে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বিস্তারিত… »

নিজের নিরাপত্তার জন্য ওয়ারলেস সেট কিনে দেয়নি বঙ্গবন্ধু

বঙ্গবন্ধুর দেহরক্ষী মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বলেন
কাজী সাব্বির আহমেদ দীপু: যে মানুষটি বিশ্বের মানচিত্রে বাংলাদেশ নামের একটি দেশকে অঙ্কন করলেন, দেশের মানুষকে নতুন একটি দেশ উপহার দিলেন, সেই মানুষটি নিজের নিরাপত্তার জন্য ওয়ারলেস সেট কিনে দিলেন না, কি বড় মনের মানুষ ছিলেন। বিস্তারিত… »

পদ্মার তলদেশে পাওয়া গেলো প্রাচীন জাহাজের নোঙ্গর

মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলায় কাওড়াকান্দি-জাজিরা পয়েন্টে পদ্মা নদীতে সেতুর নির্মাণ কাজের পাইলিং করার সময় সেখানে কয়েক টন ওজনের দুটি পুরনো জাহাজের নোঙ্গর পাওয়া যায়। এ নোঙ্গর গুলো কত বছর আগের তার সঠিক কোন ইতিহাস এখানো উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। বিস্তারিত… »

সাহাদাত পারভেজের বই “মুন্সিগঞ্জের গণহত্যা”

স্টাফ রিপোর্টার: অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০২০ এ প্রকাশিত হয়েছে খ্যাতিমান আলোকচিত্রী ও শেকড়সন্ধানী লেখক সাহাদাত পারভেজের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক বই ‘গণহত্যা বধ্যভূমি ও গণকবর জরিপ : মুন্সিগঞ্জ জেলা’। বিস্তারিত… »

দরগা বাড়ির মিরবাড়ির ভাগ্নির বাড়ীতে বঙ্গবন্ধু মাঝে মধ্যেই বিশ্রাম নিতেন

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পঞ্চাশ দশক-এ তার নিজের ভাগ্নির বাড়িতে এসে মাঝে মধ্যেই বিশ্রাম নিতেন ২/৩ দিন থাকেতেন, স্থানীয় পুকুরে গোসল করতেন। পুকুরের তাজা মাছ এবং ক্ষেতের তাজা শাঁক-সবজি দিয়ে বিস্তারিত… »

দরগা বাড়ির মিরবাড়িতে ভাগ্নির বাড়ীতে বঙ্গবন্ধু মাঝে মধ্যেই বিশ্রাম নিতেন

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পঞ্চাশ দশক-এ তার নিজের ভাগ্নির বাড়িতে এসে মাঝে মধ্যেই বিশ্রাম নিতেন ২/৩ দিন থাকেতেন, স্থানীয় পুকুরে গোসল করতেন। পুকুরের তাজা মাছ এবং ক্ষেতের তাজা শাঁক-সবজি দিয়ে বিস্তারিত… »