হুমায়ূন সাহিত্য পুরস্কার পেলেন জ্যোতিপ্রকাশ ও মোজাফফর

সামগ্রিক অবদানের জন্য জ্যোতিপ্রকাশ দত্ত এবং নবীন কথাসাহিত্যিক মোজাফ্ফর হোসেন ২০১৭ সালের এক্সিম ব্যাংক-অন্যদিন হুমায়ূন আহমেদ সাহিত্য পুরস্কার পেয়েছেন। বিস্তারিত… »

উজ্জ্বল সাহিত্যিক দম্পতি: পূরবী বসু ও জ্যোতিপ্রকাশ দত্ত

শামীম আল আমিন: খুব সুন্দর একটি দিন। ঝকঝকে রোদ্দুর মাখা। সূর্যের তেজ প্রখর। কোথাও কোনো মেঘের চিহৃ নেই। এরপরও হঠাৎ করেই আষাঢ় মাসের মতো গুড় গুড় করে আকাশ ডাকতে শুরু করলো! বিস্তারিত… »

নিউইয়র্কের বাংলা ‘বইমেলা’ – ড. জ্যোতিপ্রকাশ দত্ত

প্রবাসী বাঙালির বাংলা বই পাঠের আগ্রহ বুঝি অতুলনীয়। বাংলা গান শোনার কি বাংলা ছবি দেখারও। না হলে এই ১৭ বছরের মধ্যে নিউইয়র্কে ‘মুক্তধারা’র বইমেলা যে পরিচিতি লাভ করেছে কি সেটি যুক্তরাষ্ট্রের অন্যান্য বড় শহরেও যে ছড়িয়ে পড়েছে, তার কোনো কারণ খুঁজে পাওয়া যাবে না। বিস্তারিত… »

বাংলা সাহিত্যের বিশ্বায়ন

জ্যোতিপ্রকাশ দত্ত
বাংলা সাহিত্যে বিশ্বায়ন কি বাংলা সাহিত্যের বিশ্বায়ন ইত্যাকার নানা আধুনিক সাহিত্যালোচনায় আমরা আমাদের পরম গৌরবের বাংলা ভাষা ও সাহিত্যকে ‘ভাষা-সাহিত্য’ ভূখণ্ডের শীর্ষ স্থানগুলোর একটিতে বসানোয় নিতান্ত আগ্রহী এবং সর্বদা সচেষ্ট। আমাদের চেষ্টা সফল হোক। যদিও আমরা মনে রাখি, ‘বাংলা সাহিত্যে বিশ্বায়ন’ ও ‘বাংলা সাহিত্যের বিশ্বায়ন’ সম্ভবত এক নয়। বিস্তারিত… »

সন্ধিক্ষণের যাত্রী

জ্যোতিপ্রকাশ দত্ত
চলে আসার সময় আবার তাকিয়ে পেছনের দৃশ্যাবলি হৃদয়ে তুলে নিতে হয়। যেন কখনও ঝাপসা হয়ে না যায়। প্রিয়জনের সাশ্রুবিদায়, বন্ধুর শেষ আলিঙ্গন, পরিচিতজনের মুখে শুভেচ্ছার স্মিত হাসি, সব মনে আছে। মাত্র ক’টি বছর দেখতে না দেখতে কেটে যাবে_ বিস্তারিত… »

লেখকরা কে কী ভাবছেন

অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১১
সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী
বইমেলার একটা বড় সমস্যা হলো এর পরিসর ছোট। তাই বাংলা একাডেমীসহ এর সামনে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে কিছুটা বাড়ানো যেতে পারে। আর একটা বিষয় বইমেলার সবাই যে বই কিনতে আসে তা কিন্তু নয়। কেউ কেউ আসে ঘুরতে, দেখতে। এজন্যে দরকার টিকিট সিস্টেম করা। যাতে কেউ শুধু ঘোরাঘুরির জন্য মেলায় আসতে না পারে। বিস্তারিত… »

আমার অভিভাবক

জ্যোতিপ্রকাশ দত্ত
যখনই তাঁর কথা আমার মনে পড়ে, ভাবি যদি তাঁকে সেদিন যেতে না দিতাম। ফিলাডেলফিয়া বিমানবন্দরে আমিই তাঁকে লন্ডনের পেস্ননে তুলে দিই। পূরবী সঙ্গে ছিল না। তাঁর চলে যাওয়ার দৃশ্য তার পৰে দেখা সম্ভব ছিল না। আমি যখন তাঁকে নিয়ে আমাদের এ্যাপার্টমেন্টের বাইরের রাস্তায় ট্যাক্সিতে উঠেছিলাম সে তখন জানালায় এসেও দাঁড়াতে পারেনি। বিস্তারিত… »

যদি পাখি না ওড়ে

জ্যোতিপ্রকাশ দত্ত
এক
বালিয়াড়ির শেষে যখন তারা নদীটির পাড়ে এসে দাঁড়ায়, তখনো সূর্যে তাপ আছে। শুকিয়ে যাওয়া মহানদীর বালিয়াড়ি পার হওয়া বড় ক্লেশের। কেবল তারা দুজন-ই নয়, নিজ হাতে বিছানো কাঠের পাটাতনের গাড়িটিও তাদের সঙ্গে। সেটিকেও কখনো চালিয়ে, কখনো ঠেলে আনতে হবে জলের সীমানায়। বিস্তারিত… »