বলপেন

স র কা র মা সু দ
ছাত্র আর কর্মকর্তার জামার পকেটে লাল নীল হলুদ বেগুনি;
বলপেন ছেলে-ছোকরার অপ্রেমপত্রের আনাড়ি লেখক,
মাঝরাতে সাংবাদিকের চোখ­ সাম্প্রতিক নানা প্রশ্নে
বিহ্বল মাথার বাষ্প উড়ে চলে যখন বলপেন খননে প্রস্তুত!
জিজ্ঞাসা খুঁড়ে-খুঁড়ে তোলে কিছু অনিশ্চিত জল­
ফাইনলমগ্ন করণিক শীর্ণ আঙুলে অভিজ্ঞ তুলে আনে দামি
বলপেনের বিবা; বলপেনের প্রতিভা জানে যে-লেখক নামি।

ভরা সìধ্যায় ধাবমান হোন্ডার পেছনে ববকাট চুল
তার রোমিওর পকেটে বিদেশি বলপেন­
রূপালি রেস্তোরাঁর পর্দা থেকে উড়ে আসে প্রজাপতি
তার অন্যমনস্ক ছবি আঁকে চঞ্চল বলপেন
টেবিলের গুহা থেকে, বালিশের তলপেট থেকে বের হয়ে
বলপেন আজ টেন্ডারবাজ মানুষের গরম পকেটে পকেটে।

তার ফলে রিফিল নরম হয়, মাল বেরিয়ে পড়ে
পিচ্ছিল ধাতব ঠোঁটের প্রান্তে কুমারির প্রথম ঋতুচিহ্ন :
আঠালো গাঢ় কালোরক্ত বিছানায় ঢালে বলপেন।

[ad#co-1]

Leave a Reply