ফুলতলা গ্রামে নির্বাচনোত্তর সংঘর্ষে নারীসহ আহত ৫

মুন্সীগঞ্জের চরাঞ্চলের ফুলতলা গ্রামে বুধবার পরাজিত দুই মেম্বর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে নির্বাচনোত্তর সংঘর্ষে নারীসহ ৫ জন আহত হয়েছেন। এ ছাড়া হামলার সময় ঘরবাড়িতে ভাঙচুর করা হয়েছে। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে চরকেওয়ার ইউনিয়নের ফুলতলা গ্রামে পরাজিত মেম্বর প্রার্থী গজনবী ও মামুন খানের সমর্থকদের মধ্যে এ সংঘর্ষ বাঁধে। এতে আহত ইউসুফ সিকদার, হানিফা, মনির সিকদার, সাজেদা ও হনুফা সিকদারকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ভোট দেওয়া-না দেওয়াকে কেন্দ্র করে দুই মেম্বর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে বুধবার সকাল ১১টার দিকে তর্কবিতর্ক হয়।

পরে পরাজিত মেম্বর প্রার্থী মামুন খানের সমর্থকরা লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালালে উভয় প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। এ সময় ইউসুফ সিকদারের একটি বসতঘর ভাঙচুর করা হয়। তিনি পরাজিত মেম্বর গজনবীর সমর্থক।

এ ব্যাপারে সদর থানার সেকেন্ড অফিসার সুলতান উদ্দিন বাংলানিউজকে জানান, সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যায়।

তিনি জানান, বর্তমানে উভয় প্রার্থীর লোকজন নিজ নিজ বাড়িতে অবস্থান করছেন। এখন সেখানকার পরিস্থিতি শান্ত।

মঙ্গলবার চরাঞ্চলের চরকেওয়ার ইউপির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এ নিয়ে মুন্সীগঞ্জে বুধবার আরো কয়েকটি এলাকায় নির্বাচনোত্তর সংহিসতার ঘটনা ঘটলো।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

Leave a Reply