চার দারোগার মারামারি

মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ি উপজেলা কমপ্লেক্সে ঘুষের টাকার ভাগ নিয়ে পুলিশের চার দারোগার মারামারি হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। রোববার বিকাল ৪টার দিকে এ ঘটনার সময় টঙ্গীবাড়ি থানার চার দারোগাকে (উপ পরিদর্শক) ঘিরে ভিড় জমে যায়। তাদের মারামারি দেখে উপস্থিত লোকজন থানায় খবর দেয়। থানার ওসি আব্দুল্লাহ রাত সোয়া ৮টার দিকে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “মারামারির ঘটনাটি সত্য। এ ব্যাপারে খোঁজ খবর করা হচ্ছে।”

মারামারিতে আহত টঙ্গীবাড়ি থানার দ্বিতীয় কর্মকর্তা উপ পরিদর্শক (এসআই) প্রদীপকে টঙ্গীবাড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। অপর তিন দারোগা হলো এসআই জাহিদুল, হায়দার ও ইলিয়াস।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, জাহিদুল, হায়দার ও ইলিয়াস টঙ্গীবাড়ি বাজারে কাজী মার্কেটের সামনে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে এসআই প্রদীপকে মারধর শুরু করে। আত্মরক্ষায় প্রদীপ দৌড়ে টঙ্গীবাড়ি উপজেলা কমপ্লেক্সে ঢুকে পড়ে। কিন্তু সেখানেও গিয়েও রেহাই পাননি তিনি।

তিন দারোগা মিলে প্রদীপের মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে তাকে বেদম প্রহার করে এবং তার ফতুয়া ছিড়ে ফেলে বলে প্রত্যাক্ষদর্শীরা জানান।

পুলিশের একজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বড় অঙ্কের ঘুষের টাকা জমা ছিল প্রদীপের কাছে। ওই টাকার ভাগ নিয়েই চার জনের মধ্যে ঝগড়া বাঁধে। পরে তা মারামারি পর্যন্ত গড়ায়।

সংশ্লিষ্ট চার উপ পরিদর্শকের কেউই এ ব্যাপারে কথা বলতে রাজি হননি।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
————————————-

টঙ্গীবাড়িতে ঘুষের টাকা ভাগাভাগি নিয়ে চার দারোগার মারামারি !

মীর নাসির উদ্দিন উজ্জ্বল : রবিবার বিকাল ৪টার দিকে ঘুষের টাকা ভাগাভাগি নিয়ে চার দারোগার মারামারি হয়েছে টঙ্গীবাড়ি উপজেলা কমপ্লেক্সে। দরোগাদের মারামারি দেখে উপস্থিত লোকজন বিস্মিত হয়ে থানায় খবর দেয়। এই চার দারোগাকে ঘিরে ভিড় পড়ে যায়। আহত টঙ্গীবাড়ি থানার সেকেন্ড অফিসার দারোগা প্রদিপকে টঙ্গীবাড়ি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এই মারামারিতে অংশ নেয় একই থানার দারোগা জাহিদুল, দারোগা হায়দার ও দারোগা ইলিয়াস। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দারোগা জাহিদুল, হায়দার ও ইলিয়াস টঙ্গীবাড়ি বাজারের কাজী মার্কেটের সামনে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে সেকেন্ড অফিসার প্রদিপকে মারধর শুরম্ন করে। আত্মরক্ষায় দারোগা প্রদীপ দৌড়ে টঙ্গীবাড়ি উপজেলা কমপেস্নক্সে ঢুকে পরে। সেখানেও শেষ রক্ষা হয়নি। ২টি মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে তিন দারোগা মিলে বেদম প্রহার করে তার ফতুয়া ছিড়ে ফেলে এবং শরীরে বিভিন্ন স্থানে জখম করে।পুলিশের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে, নির্বাচন উপলক্ষে বড় অঙ্কের টাকা জমা পড়ে দারোগা প্রদীপের কাছে। এই টাকা ভাগ নিয়েই এই ঝগড়া বাধে। এব্যাপারে টঙ্গীবাড়ি থানার ওসি আব্দুলস্নাহ রাত সোয়া ৮টায় ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বিষয়টি নিয়ে খোঁজ খবর করা হচ্ছে।

এদিকে গজারিয়া উপজেলার বাউশিয়া ইউপির ২৪ নং পুরান বাউশিয়ার প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের সামনে ৫০ হাজার টাকা ঘুষের বান্ডেল নিয়ে নানা ঘটনা ঘটে গেছে। শনিবার বিকালে এক প্রার্থীর পক্ষে সিলভার কালারের নোহা গাড়িতে ম্যাজিস্ট্রেটকে দেয়া হয়। টাকার বাহক সেখানে রাখা একই রংয়ের একটি সাংবাদিক গাড়িতে টাকার বান্ডেলটি দেয়। কিছু পরেই ভুল ধরা পড়লে সেই সাংবাদিক গাড়ির টাকার বাহক মহিলা সাংবাদিকের কাছে টাকা ফেরত চাইলে তিনি অস্বীকার করেন। এই নিয়ে বাকবিতন্ডা সৃষ্টি হয়। এই নিয়ে রবিবারও নানা বিতন্ডা অব্যাহত ছিল।

মুন্সীগঞ্জ নিউজ

————————————-

টঙ্গিবাড়ি থানার সেকেন্ড অফিসারকে মারধর করেছে ৪ এসআই

মুন্সীগঞ্জের টঙ্গিবাড়ি থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই প্রদীপকে মারধর করেছে একই থানার ৪ দারোগা। রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তবে এ ঘটনা গোপন করার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। এ কারণে ওই ৪ দারোগার নাম, পরিচয় জানা যায়নি। জানা গেছে, টঙ্গিবাড়ি থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই প্রদীপসহ ৫ এসআই উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন একটি দোকানের সামনে চা পান করছিল। এ সময় ডিউটি বণ্টন নিয়ে তর্কবির্তক শুরু হয়। এক পর্যায়ে ক্ষুব্ধ হয়ে ৪ এসআই সেকেন্ড অফিসার প্রদীপকে মারধর করে।

এ প্রসঙ্গে টঙ্গিবাড়ি থানার ওসি মো. আব্দুল্লাহর সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক এসআই দাবি করেন, ডিউটি বণ্টন নিয়ে তর্কবির্তক হয়েছে। তবে মারধরের ঘটনা অস্বীকার করেছেন তিনি।

অপর একটি সূত্র জানায়, টাকা ভাগবাটোয়ারা নিয়ে এ ঘটনা ঘটেছে।

শীর্ষ নিউজ

Leave a Reply