পঞ্চাসারে মাদ্রাসা ছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু

মুন্সীগঞ্জ শহরের কাছেই পঞ্চাসারে মহিলা মাদ্রাসা হোস্টেলের সুইটি (১০) নামের এক ছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার বেলা ১১টায় তার মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে বেলা ১২টার দিকে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নিহত মাদ্রাসা ছাত্রী সুইটি শহরের কাছে পঞ্চসার উম্মুল কুরাআন মহিলা মাদ্রাসার পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রী।

জেলা সদরের গোয়ালঘূর্ণী এলাকার মো. সিদ্দিকের মেয়ে সুইটি। তার মা দুবাই প্রবাসী।

সদর থানার ওসি শহীদুল ইসলাম বাংলানিউজকে জানান, পঞ্চসার উম্মুল কুরাআন মহিলা মাদ্রাসা হোস্টেলে থেকেই পড়াশুনা করতো সুইটি। কিছুদিন ধরে সে অসুস্থ্যতায় ভুগছিল বলে জানা গেছে। তার জ-িস হয়েছিলো বলে মাদ্রাসা শিক্ষকরা দাবি করেন। তবে সে অসুস্থ্য থাকলেও তার কোন চিকিৎসা দেয়া হয়নি।

আজ শুক্রবার হঠাৎ সে জ্ঞান হারিয়ে ফেললে তাকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে আনা হয়।

এ সময় হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তার মৃত্যু নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হলে ডাক্তার পুলিশকে খবর দেয়।

এ ঘটনায় মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে ওসি শহীদুল ইসলাম বাংলানিউজকে জানান।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
——————————

মুন্সীগঞ্জে মাদ্রাসাছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু

মুন্সীগঞ্জে সুইটি (১৩) নামে এক মাদ্রাসা ছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। আজ শুক্রবার ভোরে অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে নেয়ার পথে সে মারা যায়।

জানা গেছে, সদর থানার পঞ্চসার উম্মুল কুরা মহিলা মাদ্রাসার পঞ্চম শ্রেণীর আবাসিক ছাত্রী সুইটি গত ২৯ জুন জ্বর ও মাথাব্যাথায় আক্রান্ত হয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ে। এতে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ ফার্মেসি থেকে তাকে ওষুধ এনে দেয়। খবর পেয়ে স্বজনরা সুইটিকে বাড়িতে নিতে চাইলে কর্তৃপক্ষ অনুমতি দেয়নি। আজ শুক্রবার সকালে সুইটি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ তাকে হাসপাতালে নেয়ার পথে সে মারা যায়। সুইটি শহরের গোয়ালঘূর্ণি এলাকার সিদ্দিক মিয়ার কন্যা।

সদর থানার এসআই আহসান জানান, শিক্ষার্থী সুইটিকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তার অস্বাভাবিক মৃত্যু দাবি করে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ হাসপাতাল থেকে লাশের সুরতহাল রির্পোট তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছে।

জেনারেল হাসপাতালের আরএমও এহসানুল করিম বলেন, ময়নাতদন্ত শেষ হলেই মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

শীর্ষ নিউজ
——————————

Leave a Reply