মুন্সীগঞ্জ আদালত প্রাঙ্গণে সংঘর্ষ : আহত ১১

gaz fight1মুন্সীগঞ্জ আদালত প্রাঙ্গণে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ১১ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে আদালত প্রাঙ্গণ থেকে ৪৯ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

গজারিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমিরুল ইসলাম ও আওয়ামী লীগ সমর্থিত গজারিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান রেফায়েত উল্লাহ খান তোতার সমর্থকদের মধ্যে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
gaz fight1
পুলিশ জানায়, সদর উপজেলার বালুয়াকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শামসুদ্দিন প্রধান হত্যাকাণ্ডসহ পৃথক ৩ মামলায় আদালতে হাজিরা দিতে এসে এ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন তারা।

এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহীদুল ইসলাম জানান, বালুয়াকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শামসুদ্দিন হত্যা মামলায় আদালতে হাজিরা দিতে আসেন গজারিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান রেফায়েত উল্লাহ খান তোতা।
gaz fight2

এ সময় তোতার প্রতিপক্ষ গজারিয়া আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমিরুলের সমর্থকরা তার ওপর হামলা চালায়।

এতে তোতার সমর্থকরাও পাল্টা হামলা করলে আদালত প্রাঙ্গণেই সংঘর্ষ বেধে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

ওসি আরও জানান, আটকদের থানা হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এ ঘটনার পর আদালত প্রাঙ্গণে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে বলেও জানান তিনি।

দ্য রিপোর্ট
=======

মুন্সীগঞ্জ আদালত প্রাঙ্গণে দুই পক্ষের ব্যাপক সংঘর্ষে কমপক্ষে আহত ১২ গ্রেপ্তার ৪৯

মুন্সীগঞ্জ আদালত প্রাঙ্গণে মামলার হাজিরা দিতে গিয়ে আ’লীগের দুই পক্ষের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষে কমপক্ষে ১২ জন আহত হয়েছে। এ ঘটনায় ৪৯ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০ টার সময় আদাল প্রাঙ্গণে এ ঘটনাটি ঘটে।

এ ঘটনায় আহত জাহাঙ্গীর (৩৫), মো. রিটু (২৬), মো. নাসির (২৫)-কে মুন্সীগঞ্জ সদর জেনারেল হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর ভর্তি করা হয়েছে। অপর আহতদের গ্রেপ্তার এড়ানোর লক্ষ্যে বিভিন্ন প্রাইভেট ক্লিনিকে গোপনে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে বলে জানা গেছে।

গত ২৩ মার্চ রবিবার গজারিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনি সহিংসতায় দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে গজারিয়া থানায় পাল্টাপাল্টি মামলার ঘটনায় আজ মঙ্গলবার সকালে বালুয়াকান্দি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সামছুদ্দিন খান প্রধান হত্যা মামলায় হাজিরা দিতে যান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রেফায়েত উল্লাহ্ খান তোতার সমর্থকরা। এদিকে পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী আমিরুল ইসলামের সমর্থকরাও মমলা সংক্রান্ত কাজে আজ মঙ্গলবার সকালে আদালতে আসেন। আদালত প্রাঙ্গণে দুই পক্ষের সমর্থকরা মুখমুখি হলে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এসময় উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় আদালত প্রাঙ্গণ রনক্ষেত্রে পরিণত হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়ার পূর্বেই পরিস্থিতি শান্ত হয়। এ সময় উভয়পক্ষের ৪৯ জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতদের থানা হেফাজতে নিয়ে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।
এ বিষয়ে মুন্সীগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শহিদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা এবিনিউজকে নিশ্চিত করেছেন।

এবিনিউজ

==============

মুন্সীগঞ্জে আদালতে বাদী পক্ষের উপর হামলা, আটক ৭২

মুন্সীগঞ্জের আদালত প্রাঙ্গনে একটি মামলার বাদী পক্ষের উপর আসামি পক্ষের হামলায় আটজন আহত হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে মুন্সীগঞ্জ জেলা জজ আদালত ভবনের নিচ তলায় এ ঘটনার পর তাৎক্ষণিকভাবে ৭২ জনকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মুন্সীগঞ্জের ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মো. জাকির হোসেন মজুমদার।

হামলায় আহতদের মধ্যে দুজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও দুজনকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।

ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মো. জাকির হোসেনবলেন, গজারিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের সহিংসতায় নিহত ছামসুদ্দিন প্রধান হত্যা মামলা ও নির্বাচনী সহিংসতার অপর একটি মামলার ধার্য দিন ছিল। সকালে আদালত ভবনের ভেতরে দক্ষিণ গেটের সামনে আকস্মিকভাবে বাদী পক্ষের লোকজনের উপর হামলা চালায় আসামি পক্ষের লোকজন।

এতে আটজন আহত হয় এবং পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৭২ জনকে আটক করে।

বিডিনিউজ
==========

মুন্সীগঞ্জে আদালত প্রাঙ্গণে বাদী পক্ষের উপর হামলা
আহত ৮, গ্রেফতার ৭২

মঙ্গলবার সকালে মুন্সীগঞ্জ আদালত প্রাঙ্গণে হত্যা মামলার আসামি পক্ষের হামলায় বাদী পক্ষের ৩ জনসহ অন্তত ৮ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে রিঠু ও নাসিরকে গুরুতর আহতাবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ ৭২ জনকে আটক করেছে। এদের মধ্যে ২৬ জন সামসুদ্দিন প্রধান হত্যা মামলা এবং নির্বাচনী সহিংসতার অপর একটি মামলার আসামি থাকায় আদালতে হাজির করা হয়। শুনানি শেষে আদালত তাদের জামিন বাতিল করে জেল হাজতে পাঠায়। বাকি ৪৬ জন মুন্সীগঞ্জ সদর থানায় রাখা হয়েছে।

এসব তথ্য দিয়ে ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মো জাকির হোসেন মজুমদার জানান, সদর থানায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে। মামলা রুজু হওয়ার পর তাদের আদালতে হাজির করা হবে। এ ঘটনার পর আদালতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও জোরদার করা হয়। তিনি আরও জানান, আসামি পক্ষে মামলা দুটির আসামি ছাড়াও অনেক লোক ছিল। অন্যদিকে বাদী পক্ষে অল্প কয়েকজন লোক ছিল।

পিপি এডভোকেট আব্দুল মতিন জানান, আকস্মিক আসামি পক্ষের লোকজন বাদী পক্ষের লোকজনের উপর হামলা চালায়। এতে আদালতে উপস্থিত বিচার প্রার্থী সাধারণ মানুষ ও আইজীবীরা বিপাকে পড়ে যায়।

কোর্ট ইন্সপেক্টর আব্দুল কুদ্দুস জানান, মঙ্গলবার গজারিয়ার নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত বালুয়াকান্দি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সামসুদ্দিন প্রধান হত্যা মামলা ও নির্বাচনী সহিংসতার অপর একটি মামলার ধার্য তারিখ ছিল। সকালে জজ কোর্ট ভবনের দক্ষিণ গেটের সামনে আকস্মিক বাদী পক্ষের লোকজনকে মারতে থাকে আসামি পক্ষের লোকজন। এ সময় বাদি পক্ষের লোকজন ছাড়াও ভেন্ডার জাহাঙ্গীরসহ সাধারণ লোকজন আহত হন।

এদিকে শামসুদ্দিন প্রধান হত্যাকাণ্ডে জড়িত খুনিদের ফাঁসির দাবিতে মঙ্গলবার দুপুরে মুন্সীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন হয়েছে। বালুয়াকান্দি ইউনিয়নবাসী এ মানববন্ধন করে।

ইত্তেফাক
=======

মুন্সীগঞ্জ আদালতে আওয়ামী লীগের সংঘর্ষ, আটক ৪৭

মুন্সীগঞ্জ আদালত প্রাঙ্গণে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আদালত প্রাঙ্গণ থেকে ৪৭ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে মুন্সীগঞ্জ আদালতে গজারিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমিরুল ইসলাম ও আওয়ামী লীগ সমর্থক গজারিয়া উপজেলার চেয়ারম্যান রেফায়েত উল্লাহ খান তোতার সমর্থক-কর্মীদের মধ্যে এ সংঘর্ষ হয়।

আহতদের মধ্যে গজারিয়ার তেতৈতলা গ্রামের রিটু (২৬) ও নাসির (২৬) মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে আত্মগোপনে চলে গেছেন।

বাকি আহতরা গ্রেফতার এড়াতে গোপনে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

এ ঘটনায় পুলিশ আদালত প্রাঙ্গণ থেকে উভয় গ্রুপের ৪৭ জনকে আটক করেছে। আটককৃতরা মুন্সীগঞ্জ থানা হাজতে রয়েছেন।

আটককৃতরা হলেন গোলজার (২৮), করিম (২৪), সোহেল (১৮), মুক্তার (৫৫), জামাল (১৮), শরিফুল (৩৫), সুমন (৩৫), জুলহাস হোসেন (২৮), নুরুল ইসলাম (৩৬), আলামিন (৩৬), আলম (২৫), আফজাল (২০), মুক্তার হোসেন (২৪), সোলায়মান (২৮), সুমন মিয়া (২৫), মহসিন (৩০), পারভেজ (২২), ইকবাল (৩৫), মানিক মিয়া (২১), সুজন দেওয়ান (২১), নোয়াব মিয়া (৫০), হৃদয় (১৮), জুয়েল (২৮), কবির হোসেন (৩৫), পাবেল দেওয়ান (২১), সেলিম দেওয়ান (৩০), আলম মিয়া (২৮), সোহেল (২৭), আফসারউদ্দিন সরকার (৩৫), মুকুল ঢালী (৩৫), দীন ইসলাম (২২), শাহজাহান ভূঁইয়া (২৫), আক্তার হোসেন (২৫), মিজান সরকার (৩২), জুয়েল সরকার (২৩), জাহাঙ্গীর মৃধা (৩০), আনসার আলী দেওয়ান (৩৯), শান্ত বেপারী (২৮), আনোয়ার ঢালী (২৫), আনোয়ার সরকার (৩৯), জহিরুল ইসলাম (৩৫), হানিফ হোসেন (২০), মনির হোসেন (২১), সাফায়েতউল্লাহ সিকদার (২৯), মোসলেম সিকদার (৫০), আব্দুল আলী (৪৫) ও মোতালেব হোসেন (২৫)। এদের বাড়ি গজারিয়ার তেতৈইতলা ও রায়পাড়া গ্রামে।

মঙ্গলবার দুপুর দেড়টার দিকে ইউপি চেয়ারম্যান শামসুদ্দিন হত্যা মামলার গজারিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি আবদুল মান্নান দেওয়ানসহ ২৬ আসামি মুন্সীগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট পাঁচ নং আমলি আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। পরে আদালতের বিচারক হারুন-অর- রশীদ তাদের জামিন না মঞ্জুর করে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

নতুন বার্তা
=======

মুন্সীগঞ্জ আদালতে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১২, আটক ৪৭

মামলার হাজিরা দিতে গিয়ে মুন্সীগঞ্জের আদালত প্রাঙ্গণে আওয়ামী লীগের বিবদমান দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে ১২ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আটক করা হয়েছে ৪৭ জনকে।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

আহতদের মধ্যে পাঁচজনকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিরা গ্রেফতার এড়াতে গোপনে অন্য কোথাও চিকিৎসা নিচ্ছে বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, উপজেলা পরিষদ নির্বাচন নিয়ে গজারিয়া উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান রেফায়েতউল্লাহ খান তোতা ও পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী আমিরুল ইসলামের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়। এনিয়ে থানায় দুইজনের বিরুদ্ধে পাল্টাপাল্টি মামলা রয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে বালুয়াকান্দি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সামছুদ্দিন খান প্রধান হত্যা মামলায় হাজিরা দিতে যান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রেফায়েতউল্লাহ খান তোতার সমর্থকরা। অপরদিকে পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী আমিরুল ইসলামের সমর্থকরাও মামলা সংক্রান্ত কাজে সকালে আদালতে যান। আদালত প্রাঙ্গণে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে দুইপক্ষের সমর্থকরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। উভয়পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের সময় আদালত প্রাঙ্গল রলক্ষেত্রে পরিণত হয়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এসময় উভয়পক্ষের ৪৭ জনকে আটক করে পুলিশ।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, তদন্ত) ইয়ারদৌস হাসান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর
===============

মুন্সীগঞ্জ আ. লীগের দু’গ্রুপে সংঘর্ষে আহত ১১
এ ঘটনায় উভয় গ্রুপের ৪৯ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

মুন্সীগঞ্জে আদালতের প্রাঙ্গণে মঙ্গলবার আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে অন্তত ১১ জন আহত হয়েছেন। গজারিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমিরুল ইসলাম ও আওয়ামী লীগ সমর্থিত গজারিয়া উপজেলার চেয়ারম্যান রেফায়েত উল্লাহ খান তোতার সমর্থকদের মধ্যে এ সংঘর্ষ হয়।

এ ঘটনায় উভয় গ্রুপের ৪৯ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

মুন্সীগঞ্জ সদর থানার ওসি শহীদুল ইসলাম জানান, গত ২৩ মার্চ উপজেলা নির্বাচনে বালুয়াকান্দি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শামসুদ্দিন খুন হন। এ হত্যাকাণ্ডসহ পৃথক ৩ মামলায় আসামিরা হাজিরা দিতে আসেন। সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে গজারিয়া উপজেলার চেয়ারম্যান রেফায়েত উল্লাহ খান তোতার সমর্থকদের উপর গজারিয়া আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমিরুলের লোকজন হামলা চালায়।

এ সময় তোতার লোকজন পাল্টা হামলা করলে আদালত প্রাঙ্গণে সংঘর্ষ শুরু হয়। দু’গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সমকাল

Leave a Reply