শ্রীনগরে ভূমি দস্যুদের ড্রেজারের পানিতে তলিয়ে গেছে বিদ্যালয়ের আঙ্গিনা

ছাত্র-ছাত্রীদের দুর্ভোগ
আরিফ হোসেন: শ্রীনগরে ভূমি দস্যুদের ড্রেজারের পানিতে একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আঙ্গিনা তলিয়ে যাওয়ায় চরম দুর্ভোগে পড়েছে বিদ্যালয়ের কয়েকশ ছাত্র-ছাত্রী ও শিক্ষকরা। এ নিয়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষক, অভিবাবক ও এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

রবিবার দুপুরে উপজেলার বালাসুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সরজমিনে গিয়ে দেখা যায় পানির উপর ইট বিছিয়ে ছাত্র-ছাত্রীরা এক শ্রেনীকক্ষ থেকে আরেক শ্রেণী কক্ষে ক্লাস করতে যাচ্ছে। তীব্র শীতের মধ্যে হাতের নাগালে পানি পেয়ে ছোট ছোট শিশুরা জামা-কাপড় ভিজিয়ে অনেকেই ঠান্ডা জনিত রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা নাসিমা বেগম জানান, জলাবদ্ধতার কারনে কয়েকদিন ধরে ছেলে মেয়েরা ক্লাস করতে পারছে না। গতকাল অনেক অভিবাবক এসে তাদের ছোট ছোট বাচ্চাদের স্কুল থেকে নিয়ে গেছে। শিক্ষকদেরও এক শ্রেণী থেকে আরেক শ্রেণীতে যেতে সমস্যা হচ্ছে। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতিকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি শহিদুল্লাহ রিপনের মোবাইল ফোনে একাধিকবার ফোন করলেও সে ফোন রিসিভ করেননি।

স্থানীয়রা জানান, ওই এলাকার প্রভাবশালী সামশুল আলম ও অপু ড্রেজার দিয়ে পুকুর ভড়াট করায় বিদ্যালয় জুড়ে জলাবদ্ধতা তৈরি হয়েছে। তাদের সাথে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও উপজেলা প্রশাসনের সখ্যতা রয়েছে। একারণে প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাদের কিছু বলা হচ্ছেনা।

বিষয়টি নিয়ে শ্রীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহানারা বেগমের সাথে কথা হয়েছে জানিয়ে মাটি ভরাটকারী সামশুল আলম জানান, জলাবন্ধতা দোষের কিছুনা। বরং পানির সাথে মাটি গিয়ে স্কুলের মাঠ ভড়াট হচ্ছে। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার জামাল হোসেন বলেন, এব্যাপারে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতির সাথে কথা হয়েছে। তিনি কোন সদুত্তোর দিতে পারেননি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহানারা বেগম জানান, বিদ্যালয়ের আঙ্গিনা থেকে দ্রুত পানি নিষ্কাশনের জন্য বলা হয়েছে।

Leave a Reply