ব্রিজ ভেঙে সিরাজদিখানে সড়ক ও নৌপথ বন্ধ

নৌপথ বন্ধ হয়েছে কয়েক বছর আগে। অবশেষে সম্প্রতি নদীর ওপর ব্রিজটি ধসে পড়ে সড়ক পথটিও বন্ধ হয়ে গেল! যোগাযোগের অভাবে এখন অনেকটা বন্দী জীবন-যাপন করতে হচ্ছে এলাকাবাসীকে। এমনই অবহেলিত এলাকাটি হচ্ছে মুন্সীগঞ্জ জেলার সিরাজদিখান উপজেলার বাসাইল ইউনিয়নের গুয়াখোলা, বাসাইল, উত্তর গুয়াখোলা, উত্তর রাঙ্গামালিয়াসহ আশপাশের কয়েকটি গ্রাম।

এলজিইডি বিভাগের প্রায় ২৫ বছরের পুরনো ঝুঁকিপূর্ণ বাসাইল বাজার সংলগ্ন খালের ওপর সেতু দিয়ে যাতায়াত করত। কিন্তু গত ১২ আগস্ট ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজটির একাংশ হঠাত্ নদীতে চলমান একটি ট্রলারের ওপর ভেঙে পড়ে। এতে কয়েকজন মারাত্মকভাবে আহত হয়। ফলে যানবাহন চলাচলসহ এলাকাবাসীর পায়ে হেঁটে চলাচলও বন্ধ হয়ে যায়।

ব্রিজটি দুরবস্থা প্রায় ১০ বছর যাবত্। বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রোনিক মিডিয়ায় ব্রিজটির দুরবস্থার চিত্র বিভিন্ন সময় প্রকাশিত হয়েছে। তাই এলাকাবাসীর দুর্ভোগের চিত্র দেখে ২০১০ সালে এলজিইডি বিভাগের তত্কালীন অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী স্বাক্ষরিত চিঠিতে ব্রিজটি নির্মাণের নির্দেশ প্রদান করা হয়। তারই পরিপ্রেক্ষিতে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর জিডিপি প্রকল্পের মাধ্যমে ব্রিজ নির্মাণের দরপত্র আহ্বান করে। কিন্তু দরপত্রটি অনিবার্য কারণে দীর্ঘ চার বছর পর বাতিল করা হয়।

সিরাজদিখান উপজেলা প্রকৌশলী মো. আমিনুর রহমান জানান, ব্রিজের ভেঙে যাওয়ার পর এলজিইডি বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ সরেজমিনে পরিদর্শন করেছে। পরে এলজিইডি বিভাগের গ্রেটার ঢাকা প্রকল্প ও বন্যা পুনর্বাসন প্রকল্পে ব্রিজটি নির্মাণের তাগিদ দেওয়া হয়েছে। বরাদ্দ পাশ হয়ে আসলে দরপত্র আহ্বান করা যাবে।

ইত্তেফাক

Leave a Reply