সিরাজদিখানে নারী ইউপি সদস্যকে মারধরের অভিযোগ

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলায় এক নারী ইউপি সদস্যকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে একই ওয়ার্ডের সাবেক পুরুষ ইউপি সদস্য আব্দুল বাকের মোড়লের ছেলে ও তার লোকজনের বিরুদ্ধে।

রবিবার সকালে উপজেলার শেখরনগর ইউনিয়নের দক্ষিহাটী আব্দুল মাস্টারের বাড়ির পাশে এ ঘটনা ঘটে। এ বিষয়ে সোমবার দুপুরে সিরাজদিখান উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী।

মারধরের শিকার ইউপি সদস্যের নাম ভালবাসা রাজবংশী। তিনি শেখরনগর ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের নারী ইউপি সদস্য এবং উপজেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের মহিলা সম্পাদক।

ইউপি সদস্য ভালবাসা রাজবংশী।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার শেখরনগর ইউনিয়নের আব্দুল মাস্টারের ছেলেদের সঙ্গে ইউপি সদস্য ভালবাসা রাজবংশীর রাস্তার জায়গা নিয়ে দ্বন্দ্ব হয়। একই বিষয়ে শেখরনগর ৬নং ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল বাকের মোড়লের সঙ্গেও ভালবাসা রাজবংশীর বিরোধ চলছিল। এর জের ধরে রবিবার সকালে শেখরনগর ইউনিয়নের দক্ষিনহাটী আব্দুল মাস্টারের বাড়ি সংলগ্ন স্থানে উভয়ের মধ্যে বাগবিতণ্ডা শুরু হয়। এক পর্যায়ে আব্দুল বাকের মোড়লের ছেলেসহ তার লোকজন ওই নারী সদস্যকে বেধড়ক মারপিট করে আহত করে।

ইউপি সদস্য ভালবাসা রাজবংশী বলেন, আমাকে রাস্তায় একা পেয়ে আব্দুল বাকের মোড়লের ছেলে ও তার লোকজন পেটে লাথি ও মারপিট করে আহত করে। এ ব্যাপারে আমি আজ সিরাজদিখান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছি।

শেখরনগর ৬ নং ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল বাকের মোড়ল বলেন, নারী ইউপি সদস্য আমার সঙ্গে কথা কাটাকাটি করার পর আমি প্রতিবাদ করেছি। তবে মারপিটের কোনো ঘটনা ঘটেনি।

এ বিষয়ে শেখরনগর ইউপি চেয়ারম্যান দেবব্রত সরকার টুটুল বলেন, ইউপি সদস্যদের মারপিটের ঘটনার কথা শুনেছি। এ বিষয়ে উপজেলা পরিষদে লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে সিরাজদিখান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাব্বির আহম্মেদ বলেন, নারী সদস্যকে মারপিটের ঘটনায় আজ লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ঢাকা টাইমস

Leave a Reply