গজারিয়ায় ছাদ বাগানে আগ্রহ বাড়ছে

গজারিয়ায় ফরমালিন মুক্ত সাক সবজি ও ফল খেতে ছাদবাগান করতে আগ্রহ দেখা গেছে উপজেলাবাসীর। পাকা বাড়ির খালি ছাদে বেড তৈরি করে অথবা টবে বা ড্রামে চাষাবাদ করে যে বাগান গড়ে তোলা হয় তাকেই ছাদবাগান বলা হয়। ইটের তৈরি যেকোন আবাসিক, বাণিজ্যিক ভবন বা কলকারখানার ছাদে নান্দনিক বাগান গড়ে তোলা যায়।

বর্তমান পরিস্থিতিতে খাদ্য তালিকায় ফরমালিন মুক্ত সাক-সবজি, ফল নিজেদের চাষকরা ভূমি থেকে উৎপাধিত হওয়া জরুরি মনে করছে। গজারিয়া উপজেলার বেশি সংখ্যক কৃষি জমিতে গড়ে উঠতে শুরু করেছে মেল-ইন্ডাস্ট্রি। উপজেলায় বেসরকারি মেল-ইন্ডাস্ট্রি গড়ে উঠায় দখলে চলে যাচ্ছে। এতে কমতে শুরু করেছে কৃষি জমি, ও ফলের বাগান। ফরমালিন মুক্ত নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য ফল-মুল, সাক-সবজির চাহিদা মেটাতে নিজেরাই সবজি ও ফল উৎপাদন করতে ছাদ বাগান করার অগ্রহ পরিলক্ষিত হয়।

সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে লক্ষ্য করা যায়, পাকা বাড়ির ছাদের খালি জায়গায় বিভিন্ন উপায়ে ছাদবাগানে কেউ ফলের চারা, বিভিন্ন সাক-সবজি, কেউ আবার ড্রাগন চাষাবাদ করেছে।

একাধিক ছাদবাগানের সাথে কথা বললে তারা জানান, প্রথমত কৃষি জমির পরিমাণ কমে যাওয়া এলাকার কৃষকরা সকসবজির আবাদ করছে না। বাজারে যে সকল সাক, সবজি, কিনে খাবো তাতে রয়েছে বিষাক্ত রাসায়নিক পদার্থ ফরমালিন। তাই নিজেরাই ছাদের খালি জায়গায় সবজির চাষাবাদ করছি।

এছাড়াও বার মাসি ফল লেবু, সহ ধনেপাতা, পুদিনা পাতা, কাঁচা মরিচ ছাদ বাগানে চাষাবাদ করে প্রয়োজনের কিছুটা হলেও চাহিদা পূরণ করেছ বলে জানান।

বিশেষজ্ঞ কৃষিবিদদের মতে ছাদ বাগানের প্রথম শর্ত হচ্ছে গাছ বাছাই জেনে বুঝে বিশ্বস্ত নার্সারির কাছ থেকে গাছ সংগ্রহ করতে হবে। প্রথমত ছাদে বাগান করার সময় লক্ষ্য রাখতে হবে যেন গাছটি বড় আকারের না হয় অর্থাৎ ছোট আকারের জাতের গাছ লাগাতে হবে এবং গাছে যেন বেশি ফল ধরে সে জন্য হাইব্রিড জাতের ফলদ গাছ লাগানো যেতে পারে যেমন আম্রপালি ও মল্লিকা জাতের আম, পেয়ারা, আপেল কুল, জলপাই, করমচা, শরিফা, আতা, আমড়া, লেবু, ডালিম, পেঁপে। বেঁটে প্রজাতির অতিদ্রুত বর্ধনশীল ও ফল প্রদানকারী গাছই ছাদ বাগানের জন্য উত্তম। ছাদ বাগান এর ক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে বীজের চারা নয় কলমের চারা লাগালে অতিদ্রুত ফল পাওয়া যায়। আজকাল বিভিন্ন ফলের গুটি কলম, চোখ কলম ও জোড় কলম পাওয়া যাচ্ছে। ছাদ বাগানের জন্য এসব কলমের চারা সংগ্রহ করতে পারলে ভালো হয়।

নিউজজি

Leave a Reply