৫ বছর পর লাশ হয়ে দেশে ফিরছেন বিল্লাল

মালয়েশিয়া থেকে ৫ বছর পর দেশে ফেরার কথা ছিল বিল্লাল হোসেনের (২৫)। বিমানের টিকেট কনফার্ম করে স্বজনদের জন্য কেনাকাটা করতে গিয়েছিলেন মার্কেটে। কিন্তু কেনাকাটা করার সময়ই হঠাৎ অসুস্থ হয়ে শুক্রবার (২৯ ডিসেম্বর) বিল্লালের মৃত্যু হয়। মৃত্যুকালে শেষবারের মতোও আপজনদের দেখা হলো না বেল্লালের।

বিল্লাল মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার কুকুটিয়া ইউনিয়নের বিবন্দী গ্রামের আব্দুল জব্বার ওরফে বোহানউদ্দিন মোল্লার ছেলে।

বিল্লালের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, সংসারের অভাব ঘোচাতে ৫ বছর আগে মালয়শিয়া যান বিল্লাল। এই প্রথম ৩০ ডিসেম্বর ছুটিতে দেশে ফেরার কথা ছিল তার। পরিবারের জন্য শুক্রবার মালয়েশিয়ার জালান সিলাং কোতারায়া বাংলা মার্কেটে শপিং করতে যান তিনি। সেখানে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। সেখান থেকে তাকে স্থানীয় হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বিল্লালের বাবা আব্দুল জব্বার ওরফে বোহানউদ্দিন মোল্লা জানান, বিমানের টিকেট কাটার পর সে মার্কেটে শপিং করতে গিয়েছিল। সেখানেই হঠাৎ অসুস্থ হয়ে মারা যায়। ছেলে ৫ বছর পর দেশে আসছে এই আশায় ছিলাম। কিন্তু হঠাৎ করে তার মৃত্যু খবর জানতে পারি। এটা একজন বাবার জন্য কত কষ্টের তা বোঝাতে পারব না বলেই কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি।

কুকুটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আব্দুল কাইয়ুম মিন্টু বলেন, খবর পেয়ে বিল্লাল হোসেনের বাড়িতে গিয়েছিলাম। মরদেহ দেশে ফেরত আনার বিষয়ে প্রয়োজনী কাগজপত্র মালয়েশিয়ায় থাকা আত্মীয়-স্বজনদের কাছে ইমেল করা হয়েছে। বিল্লালের মরদেহ দ্রুত দেশে আনার প্রস্তুতি চলছে।

ব.ম শামীম/আরকে

Leave a Reply