নিখোঁজের দুদিন পর নদীতে ভাসল ডালিমের মরদেহ

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় মালয়েশিয়া ফেরত এক ব্যক্তির গলাকাটা ভাসমান মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (৮ মার্চ) দুপুরে উপজেলার বাউশিয়া ইউনিয়নের পশ্চিম নয়াকান্দী গ্রামে আনারপাড় স্লুইচ গেট সংলগ্ন মেঘনা নদীর শাখা নদীতে ভাসমান অবস্থায় লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

এর আগে সকাল ১১টায় স্থানীয় কৃষকরা জমিতে কাজ করার সময় নদীতে ভাসমান লাশ দেখতে পায়। পরে এলাকায় খবর দিলে দুদিন যাবত নিখোঁজ থাকা ডালিমের লাশ চিহ্নিত করে স্বজনরা।

নিহত ডালিম দেওয়ান (৩৮) গজারিয়া উপজেলার বাউশিয়া ইউনিয়নের পোড়াচক বাউশিয়া মৃত ইসমাঈল দেওয়ান মাস্টারের ছেলে। তিনি গত ৩ বছর আগে মালয়েশিয়া থেকে দেশে ফিরে আসেন।

গত বুধবার বিকেলে ওয়াজ মাহফিলে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়ে তিনি নিখোঁজ হন।

ডালিম দেওয়ানের সহধর্মিণী লিপি আক্তার জানান, বুধবার বিকেলে আমি দোকানে ছিলাম। তিনি ফোনে আমাকে বলেন- তুমি তাড়াতাড়ি চলে আসো। পরে বাড়ি এসে তাকে ফোন দিলে তিনি ফোন ধরেনি। পরে রাতে ফোন করলে ফোন বন্ধ পাই। বৃহস্পতিবার সকালে ফোন খোলা ছিল কিন্তু রিসিভ করেনি। রাতে ফোন বন্ধ পেয়েছি।

ডালিমের বড় ভাবি বলেন, বুধবার সন্ধ্যায় কালো টিশার্ট ও প্যান্ট পরা অবস্থায় ঘর থেকে বের হয় ডালিম। ধারণা করছিলাম সে ওয়াজ মাহফিলে যাবে। কিন্তু এরপর আর বাড়ি ফিরে আসেনি। সকালে ডালিমের লাশ নদীতে ভাসমান অবস্থায় দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা বাড়িতে খবর দেন।

গজারিয়া থানার ওসি মো. রাজিব খাঁন কালবেলাকে বলেন, লাশ উদ্ধার কার্যক্রমে ছিলাম এবং ঘটনার আশপাশের এলাকা পরিদর্শন করেছি।

গজারিয়া নৌ পুলিশ ফাঁড়ির এসআই রেজাউল করিম কালবেলাকে বলেন, নদী থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে এটি হত্যাকাণ্ড।

কালবেলা

Leave a Reply